অনলাইনে টাকা ইনকাম: বর্তমানে আর্টিকেল লিখে অনেক ছেলে-মেয়ে টাকা ইনকাম করছে। খুব সহজে আর্টিকেল লেখার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করা। যে কেউ তার পড়ার পাশাপাশি দিনে দুই থেকে তিন ঘণ্টা সময় দিয়ে এই পেশার মাধ্যমে কিছু ইনকাম করতে পারবে। কিভাবে আর্টিকেল লিখে টাকা ইনকাম করতে হয় এই পোষ্টের মাধ্যমে আমি তা আপনাদেরকে জানাবো।  

আর্টিকেল কথাটি আপনার কাছে অপরিচিত হতে পারে। আর্টিকেল অর্থাৎ আমরা বিভিন্ন ওয়েবসাইটে যে সকল লেখা পড়ে থাকি সেই সকল লেখাকে আর্টিকেল বলা হয়। যারা এ সকল আর্টিকেল লিখে তাদেরকে আর্টিকেল রাইটার বলা হয়। কোন ব্যক্তি যদি আর্টিকেল রাইটিং কে পেশা হিসেবে নেয় তাহলে সে প্রতিমাসে 50 থেকে 1 লক্ষ টাকা ইনকাম করতে পারবে।

অনলাইনে টাকা ইনকাম

আর্টিকেল কোথায় বিক্রি করবেন? 

সাধারনত এই আর্টিকেলগুলো কিনে থাকে যারা বিভিন্ন ধরনের ব্লগ সাইট চালায়। মূলত তারাই এই আর্টিকেলের মূল ক্রেতা। অনলাইনে বিভিন্ন প্ল্যাটফর্ম আছে যেখানে আপনি আপনার আর্টিকেল বিক্রি করতে পারবেন । যেমন: আপ ওয়ার্ক, ফাইবার, ওডেক্স ইত্যাদি। 

আপনি নিজেও একটি ব্লগ অথবা ওয়েবসাইট খুলে আপনার আর্টিকেল পাবলিশ করতে পারবেন । কিভাবে গুগল এডসেন্স থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। 

কিভাবে গুগল এডসেন্স থেকে টাকা ইনকাম করতে হয়? 

এছাড়াও আপনি বাংলাদেশের বিভিন্ন ব্লগারদের কাছে আপনারা আর্টিকেল বিক্রি করতে পারবেন ।

বর্তমানে বাংলাদেশে দুই ধরনের আর্টিকেল বেচাকেনা হয়ে থাকে। ইংরেজি ভাষার এবং বাংলা ভাষার আর্টিকেল। ইংরেজি ভাষার আর্টিকেল এর মূল্য বাংলা ভাষার আগের থেকে অনেক বেশী। ইংরেজি ভাষায় আর্টিকেল লিখে আপনি যদি একশ টাকা পান বাংলা ভাষায় আর্টিকেল লিখে আপনি 30 থেকে 40 টাকা পেতে পারেন। 

আমি নিজেও একজন ব্লগার। লেখালেখি করতে খুব পছন্দ করি। আমার বিভিন্ন বন্ধুদের কাছে আমি আমার লেখা আর্টিকেল বিক্রি করি এবং আমার ব্যক্তিগত ওয়েবসাইটে আমার আর্টিকেল পাবলিশ করে থাকি। 

আপনি যদি একজন ভাল আর্টিকেল রাইটার হন তাহলে আপনার আর্টিকেল এর চাহিদা অনেক থাকবে। সেজন্য আপনাকে বাংলা এবং ইংরেজি ভাষায় পারদর্শী হতে হবে। 

একটা আর্টিকেল কিভাবে লিখতে হয়? 

সাধারণত যারা আর্টিকেল কিনে থাকে তারা সাড়ে 300 থেকে ১৫০০ কিবোর্ডের আর্টিকেল কিনে । আর্টিকেলের কিওয়ার্ড যত বেশি হয় তার দাম তত বেশি। একটি আর্টিকেল আপনি যদি বাংলাদেশ বিক্রি করেন এবং সেই আর্টিকেল কি যোদি 500 কিওয়ার্ডের হয় তাহলে 150 থেকে 200 টাকা বিক্রি করতে পারবেন। আপনি যদি প্রফেশনাল আর্টিকেল রাইটার হন তাহলে 500 টি ওয়ার্ডের একটি আর্টিকেল অন্য কোন দেশের ব্লগারের কাছে 400 থেকে 600 টাকা বিক্রি করতে পারবেন। 

আপনি কি জানেন আর্টিকেল কি? 

এতক্ষণ ধরে আর্টিকেল আর্টিকেল শব্দটি শুনছেন। কিন্তু আপনি কি বুঝতে পারছেন আর্টিকেলটি আসলে কি? 

আপনি আমার যে লেখাটা এতক্ষণ ধরে পড়লেন এটা ও একটি আর্টিকেল। 

ছোটবেলা আমরা গরু, ছাগল, ভেড়া ইত্যাদি সম্পর্কে রচনা লিখেছে। একটা আর্টিকেল ও ঠিক একই রকম। আমরা যখন গরুর রচনা লিখেছি, রচনাটিতে গরু সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য প্রদান করেছি। গরুর কয়টি পা, গরু কী খায়, গরুর উপকারিতা ইত্যাদি সম্পর্কে লিখেছি। 

একটি আর্টিকেল ঠিক একটি  গরু রচনা  মত। আপনাকে একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে লিখতে বলা হবে আপনি সেই বিষয় সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য প্রদান করবেন। 

যেমনঃ আমি এই আর্টিকেলটিতে আর্টিকেল লিখে কিভাবে টাকা ইনকাম করতে হয় এই সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য আপনাকে প্রদান করছি। এভাবে আপনি যখন কোন বিষয়ে লেখালেখি করবেন আপনিও সেই বিষয়ে সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য সে আর্টিকেল এর মধ্যে দিতে হবে। 

এত তথ্য কোথায় পাবেন?

তথ্য পাওয়ার জন্য আপনাকে কোন চিন্তা করতে হবে। বায়ার আপনাকে যে বিষয়ে লিখতে বলুক না কেন, আপনি গুগলের সেই বিষয়ে সার্চ দিয়ে চার থেকে পাঁচটা আর্টিকেল পড়বেন। তাহলে আপনি বুঝতে পারবেন সেই বিষয়ে কি কি লিখতে হবে। ওই আর্টিকেল গুলোর তথ্য হুবহু কপি করা যাবে না। তথ্যগুলো সংগ্রহ করে আপনি আপনার নিজের মনের মত করে লিখুন। 

এভাবেই একটি আর্টিকেল লিখতে হয়। 

আশা করি, আপনি বুঝতে পেরেছেন আর্টিকেল লিখে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায়। আপনি নিজের আর্টিকেল নিজের ওয়েবসাইটে গিয়ে প্রতিমাসে 50 থেকে এক লক্ষ টাকা ইনকাম করতে। এ বিষয়ে জানতে নিচের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করুন অথবা অ্যাডসেন্স এর মাধ্যমে কিভাবে টাকা ইনকাম করতে হয় এই পোস্টটি পড়ুন। 

বাংলালিংক সিমের কিছু অফার ।

বাংলাদেশের সকল কলেজের EIIN নাম্বার | বাংলাদেশ শিক্ষা বোর্ড 2020

By Mahedi

আসসালামুয়ালাইকুম, আমার নাম মোঃ মেহেদী হাসান রনি। আমার বাসা পাবনা। আমি একজন ছাত্র । আমি পড়াশোনার পাশাপাশি লেখালেখি করতে খুব ভালোবাসি । আমার  বিভিন্ন বিষয়ে লেখালেখি করতে খুব ভালো লাগে। আমি যে সকল বিষয়ে লেখালেখি করে থাকি তা হল- খেলাধুলা, শিক্ষ্‌ রাজনীতি, স্বাস্থ্য ইত্যাদি । এটা আমার কোন পেশা না । আমার ভালো লাগে তাই আমি লেখালেখি করি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *